মৌজা ও গ্রামের পার্থক্য

মৌজা এবং গ্রাম দুটি প্রায় সমার্থক অর্থের প্রকাশিত হয় বলে অনেকেই মনে করেন। মৌজা কথাটি এসেছে মুঘল আমল থেকে এটি ধারণা করা হয়। মুঘল আমলে তাদের ভূমির রাজস্ব আদায় করার জন্য মুঘলরা ভূমি ব্যবস্থাপনাকে ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র ভাবে ভাগ করে থাকেন। কারণ ক্ষুদ্র ক্ষুদ্রভাবে ভাগ করলে জমির খাজনা আদায় বা কর আদায় করা সহজ হয়। অর্থাৎ রাজস্ব আদায়ের সুবিধার্থে তারা এই কার্যটি করেছিল। এবং তখন থেকেই এই মৌজা শব্দটি আমাদের ভূমি ব্যবস্থাপনার ক্ষেত্রে চলে আসছে বলে মনে করা হয়।

কিন্তু বর্তমান ভূমি ব্যবস্থাপনার ক্ষেত্রেও মৌজার গুরুত্ব রয়েছে। কারণ ভূমি ব্যবস্থাপনা কে সুন্দরভাবে সাজানোর জন্য যে ক্ষুদ্র একক ব্যবহার করা হয় সেই ক্ষুদ্র এককের নামই হলো মৌজা। জমি বা ভূমি ব্যবস্থাপনায় গ্রামের তেমন কোন গুরুত্ব নেই। কারণ ভূমি ব্যবস্থাপনার ক্ষেত্রে ভূমির পরিচয় ক্ষেত্রে গ্রামের উল্লেখ থাকে না এখানে মৌজার উল্লেখ থাকে। আর এই কারণেই আধুনিককালে মনে করা হয় যে মৌজা বা গ্রাম দুটি একই বিষয় অর্থাৎ জমি জমার ক্ষুদ্র এককে মৌজার হিসাব ধরা হয় এবং মানুষের পরিচয় এর ক্ষেত্রে অর্থাৎ মানুষের যে তৃণমূল পর্যায়ের ঠিকানা তাকে ধরতে গ্রাম ব্যবহার করা হয়ে থাকে।

তাই অনেকেই আমরা যদিও মনে করে থাকি গ্রাম এবং মৌজা আসলে একই অর্থে ব্যবহার করা হয়ে থাকে। গ্রাম আসলে জনবসতির ক্ষুদ্রতম একক এবং রাষ্ট্রীয় প্রশাসনিক এবং সামাজিক ক্ষেত্রে নিম্নতম একক বা ক্ষুদ্র একক হলো গ্রাম। তাই বলা যায় গ্রাম হল মৌজার ক্ষুদ্রতম বা অন্তর্ভুক্ত শক্ত সামাজিক বন্ধনে গঠিত মানস্য বসতি। অর্থাৎ মনুষ্য বসতির ক্ষুদ্রতম একককে আমরা গ্রাম বলে থাকি। আরো ভালো করে বললে বলা হয় যে গ্রামকে আমরা শহরে মহল্লা বা ওয়ার্ডের সঙ্গেও তুলনা করতে পারি এবং এটি অবশ্যই সরকারের নিম্নতম রাজস্য একক মজার সঙ্গেও অনেকটা অভিন্ন হিসেবেই ধরা হতে পারে।

আবার রাজস্ব নির্ধারণ এবং রাজস্ব আদায়ের জন্য এক ইউনিট জমির ভৌগোলিক অভিব্যক্তি হলো মৌজা। অর্থাৎ জমির জন্য তৈরি ঠিকাদার ক্ষেত্রে দেখা যায় যে ভূমির ব্যবস্থাপনার ক্ষুদ্র এককে যে জমি অবস্থিত রয়েছে সেই ক্ষুদ্র এককে বা একককে মৌজা বলা হয়ে থাকে। আমরা এর আগেই বলেছিলাম যে মুঘল আমলে কোন পরগনা বা রাজস্ব জেলার রাজস্ব আদায়ের একক হিসেবে এই শব্দটি তারা ব্যাপকভাবে ব্যবহার করত এবং বর্তমানে ওখান থেকেই এই মৌজা শব্দটি এখনো প্রচলিত রয়েছে বলেই ধারণা করা হয়।

তবে ভূমি ব্যবস্থাপনার ক্ষেত্রে দেখা যায় যে এই মজার মধ্যে অর্থাৎ একটি মজার মধ্যে অনেকগুলি গ্রাম থাকতে পারে।
কিন্তু মৌজা গ্রামের চাইতে বড় গ্রাম মৌজা চাইতে ছোট এই কারণে একটি মৌজায় অনেকগুলো গ্রাম থাকলেও একটি গ্রামে বিভিন্ন মৌজার অংশ থাকতে পারে। তাই বলা যেতে পারে যে মৌজা হল জমি সনাক্তকরণের সবচেয়ে গ্রহণযোগ্য চিহ্ন।

মজার অন্তর্গত নির্দিষ্ট পরিমাণ ভূমিতে কি কি স্থাপনা আছে কতগুলো বসতঘর আছে তা থেকে কত টাকা রাজস্ব আছে এই সমস্ত তথ্য রাষ্ট্রের কাছে সংরক্ষিত থাকে। এবং সে কারণেই রাষ্ট্রের কাছে মৌজা বা মৌজার তথ্য অনেক গুরুত্বপূর্ণ বলেই ধরে নেওয়া হয়। তাহলে আপনারা অবশ্যই আমাদের এই পোস্টটি থেকে দেখে নিতে পারলেন যে মৌজা এবং গ্রামের পার্থক্য কি না দুটি অর্থাৎ মজা এবং গ্রাম একইভাবে বা সমর্থক শব্দে উচ্চারিত হয় কিনা এ সকল বিষয়ে আপনারা বিস্তারিতভাবে দেখে নিতে পারলেন আমাদের এই পোস্ট থেকে।

তাই আপনারা আপনাদের দৈনন্দিন জীবনে যে ধরনের তথ্য প্রয়োজন হয় বা হতে পারে সে সকল তথ্যগুলি আপনারা আমাদের ওয়েবসাইট থেকে দেখে নিতে পারেন। কারণ আমরা আপনাদের জন্য সব সময় আপনাদের প্রয়োজনীয় যে সকল তথ্যগুলি আপনাদের কাজে লাগতে পারে তা আমরা তুলে ধরার চেষ্টা করি আমাদের ওয়েবসাইটের মাধ্যমে। তাই আপনারা আমাদের ওয়েবসাইটটি ভিজিট করে আমাদের সঙ্গে থাকতে পারেন।