জমির মৌজা রেট ২০২৩

আমরা জানি যে জমির দলিল রেজিস্ট্রেশন করতে হলে বা জমি ক্রয়-বিক্রয় করতে হলে অবশ্যই জমির দলিল রেজিস্ট্রেশন করতে হয়। আর জমির দলিল রেজিস্ট্রেশন করতে হলে সরকারকে অবশ্যই ট্যাক্স বা রাজস্ব দিতে হয়। তবে এই রাজস্ব বা ট্যাক্স সরকারকে অথবা সরকারের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানকে খেয়ালখুশিমত দেওয়া যায় না। সরকার কর্তৃক নির্ধারিত রয়েছে এই সকল রাজস্ব সম্পর্কে। আর এই রাজস্ব অবশ্যই বিভিন্ন এলাকার জন্য বিভিন্ন রকমের হতে পারে। অর্থাৎ বিভাগের শহরের জমির রেজিস্ট্রেশন করতে এক রকম রাজস্ব আদায় করে সরকার আবার জেলা শহরের জমি রেজিস্ট্রেশন করতে আরেক রকমের রাজস্ব আদায় করে।

এরকমভাবে দেখা যায় যে রাজধানী অথবা অন্যান্য সিটি কর্পোরেশনের আলাদা আলাদা মৌজার রাজস্ব আদায়ের রেট রয়েছে। তেমনিভাবে দেখা যায় যে পৌরসভা অঞ্চলের মৌজার রাজস্ব আদায়ের রেট একরকম এবং গ্রামীণ অঞ্চলের মৌজার রাজস্ব আদায়ের এর রেট আলাদা আলাদা হয়ে থাকে। তেমনি ভাবে আবার কৃষি জমির বা মাঠ পর্যায়ের যে মৌজাগুলি রয়েছে সেই সকল মৌজাগুলির রাজস্ব আদায়ের রেট এবং বাজার অঞ্চলের মৌজার রাজস্ব আদরের পেট আলাদা আলাদা হয়ে থাকে। এখন আমরা কোন মৌজার কেমন ধরনের রাজস্ব আদায়ের রেপ রয়েছে সে সম্পর্কে আপনাদেরকে বিশদভাবে জানানোর চেষ্টা করব।

জমি রেজিস্ট্রেশনে এখন থেকে অর্থাৎ পহেলা জানুয়ারি ২০২৩ সাল থেকে সারাদেশে নতুন মৌজা রেট কার্যকর হয়েছে। ২০২২ সালে এক ধরনের মৌজারেট ছিল এখন 2023 সালের পহেলা জানুয়ারি থেকে আলাদা মৌজা রেট কার্যকর হয়েছে। এবং এই রেট ২০২৩ সাল এবং ২০২৪ সালের জন্য সংশোধিত মৌজারেট হিসেবে অনুমোদন দিয়ে থাকে সরকার।

সূত্র থেকে জানা যায় সংশোধিত নতুন মৌজারেট সরকারি হিসেবে প্রতি ওযুতাংশ জমির শ্রেণীভিত্তিক মূল্য সর্বনিম্ন 10 থেকে 50 শতাংশ পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে। অর্থাৎ নতুন সংশোধিত মৌজা রেট অনুযায়ী সম্পত্তির সর্বনিম্ন বাজার মূল্য নির্ধারণ করে 2023 এবং 24 সালের জন্য প্রস্তুত করা হয়েছে এই নতুন মৌজা রেট টি। বর্তমান রেট অনুযায়ী রাজধানীর ঢাকার বাড্ডা সাব রেজিস্টার এর তালিকা দিয়েন পূর্বের বাড়ি শ্রেণীর জমির অযুতাংশ প্রতি মূল্য ছিল ২৬১৪৯ টাকা সংশোধিত মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে 28480 টাকা হিসাবে।

আবার খিলখেত থানায় ডুমনি মৌজায় আগে ছিল ৫০০০৯৯ টাকা এখন ৬ হাজার ১২০ টাকা হিসাবে ধরা হয়েছে। পাতিরা পূর্বে ৪৩৮০ টাকা সংশোধিত মূল্য ৪৮৩৭ টাকা বরুয়া পূর্বে ৯৬৭ টাকা সংশোধিত ৯৭৯৯ টাকা হিসাবে ধরা হয়েছে। এবং মাস তুলে পূর্বের মূল্য ১০৩৪৩ টাকা এবং বর্তমানে করা হয়েছে সেটি ৩৩৮৪৮ টাকা। অর্থাৎ জোয়ার সাহারা মৌজায় বাড়ি শ্রেণীর জমির চেয়ে ভিটা শ্রেণীর জমির মূল্য বেশি নির্ধারণ করা হয়েছে।

বাড়ির শ্রেণীর প্রতি ওযুতাংশ ২৮ হাজার ৪৮০ টাকা হলেও ভিটা শ্রেণীর মূল্য ধরা হয়েছে ৫৩ হাজার ৪৩৮ টাকা। একইভাবে দেখা যায় যে মস্তুল মৌজায় বাড়ির শ্রেণীর জমির প্রতি ওযুতাংশের মূল্য ছিল ৩৩ হাজার ৮৪৮ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে বর্তমানে কিন্তু ভিটা শ্রেণীর জমির দাম এখন ধরা হয়েছে প্রতি অজিত অংশ 47859 টাকা হিসাবে। তিন পার্বত্য জেলা ছাড়া বাকি যে 61 টি জেলা রয়েছে এই ৬১ জেলায় নতুন এই মৌজারের ২০২৩ সালের পহেলা জানুয়ারি থেকে কার্যকর করা হয়েছে।

তাই বর্তমানে সকল সাব রেজিস্টার এর অফিসে ২০২২ সালের যে মৌজার এর নির্ধারণ করা ছিল এখন থেকে অর্থাৎ ২০২৩ সালের পহেলা জানুয়ারি থেকে ২০২৪ সালের ৩১ শে ডিসেম্বর পর্যন্ত বর্তমান সংশোধিত মৌজা রেট কার্যকর থাকবে।তাই আপনারা যারা বর্তমানে জমি ক্রয় করবেন তাদেরকে অবশ্যই নতুন মৌজা রেট অনুযায়ী ভেবে নিতে হবে আপনার কত টাকা দলিল রেজিস্ট্রি খরচ বাবদ লাগতে পারে সেই বিষয়টি অবগত হবেন সর্ব প্রথমে। তাই আপনারা আজকে আমাদের এই পোস্ট থেকে নতুন মৌজার এর সম্পর্কে অবশ্যই ধারণা পেলেন।